Start Planning
শহীদ দিবস

শহীদ দিবস 2021, 2022 এবং 2023

প্রতিবছর ২১ ফেব্রুয়ারী, বাংলাদেশ শহীদ দিবস উদযাপন করে, যা একটি গুরুগম্ভীর ছুটির দিন। এই ছুটির দিনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের সাহস এবং মৃত্যুর কথা স্মরণ করা হয় যারা বাংলাকে জাতীয় ভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে লড়াই করে। এটি জাতির “শহীদের” স্মৃতির সম্মানে জাতীয় শোক দিবস।

বছরতারিখদিনছুটির
202121 ফেব্রুয়ারিরবিবারশহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস
202221 ফেব্রুয়ারিসোমবারশহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস
202321 ফেব্রুয়ারিমঙ্গলবারশহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস
202421 ফেব্রুয়ারিবুধবারশহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

শহীদ দিবসের পটভূমি হচ্ছে, ১৯৫০-এর দশকে যখন বাংলাদেশ ও পাকিস্তান এক জাতি হিসেবে একত্রিত ছিলো, তখন পাকিস্তান উর্দুকে বর্তমান বাংলাদেশের জাতীয় ভাষা হিসেবে ঘোষণা করার প্রচেষ্টা চালিয়েছিলো। কিন্তু বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষই উর্দু নয়, বাংলা ভাষায় কথা বলে।

এ কারণে জোরপূর্বক উর্দু ভাষা চাপিয়ে দেয়ার বিরুদ্ধে বাংলাদেশে খুব দ্রুত ছাত্র ও অন্যান্য প্রতিবাদকারীদের সমাবেশ ঘটতে থাকে। পুলিশ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়, এবং অনেককে গ্রেফতার করা হয়, সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের কারণে দোষী সাব্যস্ত করা হয়, অথবা গুলি করে হত্যা করা হয়। পরিশেষে, পাকিস্তান পিছু হটে এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় ভাষা হিসেবে বাংলাকে সমর্থন করে এবং স্বীকৃতি দেয়।

বাংলাদেশের অন্যান্য প্রায় সব ছুটির দিনগুলি থেকে, যেগুলো আনন্দে পরিপূর্ণ, শহীদ দিবস একটি গুরুগম্ভীর শোকের সময়। অতীতের শহীদদের প্রতি শোক প্রকাশের জন্য অনেকেই কালো ও সাদা পরিধান করে। বাকিরা শহীদদের স্মৃতির সম্মানে ফুল এবং পুষ্পমালা সমর্পণ করে। এসময় পারিপার্শ্বিক অবস্থা গুরুগম্ভীর, স্বদেশভক্তিপূর্ণ, এবং তীব্র থাকে।